(১)
সুবোধ, তোর যাত্রা শুরু হোক আলোকের পথে,
সোনার আলোর প্রভাত সূর্য আনবি সোনার রথে,
কাটতে আঁধার শাবল চালা নিজ হাতের হিম্মতে।


(২)
সুবোধ, যাইস না দূরে, ভয় কেনো অন্ধকারে?
এবার জোর করাঘাত কর শোষকের বন্ধ দ্বারে।
ধরণীর বুকে আনতেই হবে অমিত আলোর রশ্মিটারে।


(৩)
ভয় দেখায়ে তারা বলে- 'সময়খানি পক্ষে নাই'!
অমিত আলোর রশ্মিখানি, সুবোধ, তোর বক্ষে নাই?
অন্ধকারে ঘুরে মরলে, জানিস, তোর রক্ষে নাই।


(৪)
সুবোধ, কবে ভোর হবে আলোর পাখির গানে?
ওখানে যে পাখা ঝাপটায় এই জীবনের মানে।
চল্ রে সুবোধ সদলবলে প্রভাত সুরুজ পানে।


(৫)
সুবোধ, ফিরে আয় তুই, ভালোবাসা আজ বন্দী;
সত্য এবং মিথ্যার সাথে প্রতিদিন হয় সন্ধি।
হৃদয়ের খাঁচা খুলে দে, হেসে উঠুক প্রতিবন্ধী।


০৪/০৬/২০১৯
মিরপুর, ঢাকা।


('অমর একুশ' বাংলা ভাষার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত।
তাই, একুশ শব্দের কবিতা চলুক কবিতার আসরে।
তার চেষ্টায় লিখে যাই এই 'কবিতা একুশ'।)