বাংলাদেশের কবি তুমি, তাই পশ্চিমবঙ্গবাসী, প্রায় গেছে ভুলে।
এপার বাংলা ওপার বাংলার সেই দ্বন্দ্ব-সিন্ধু, নেই এক বোঁটার দুই ফুলে॥
বিদ্রোহী কবির বিদ্রোহী কলম যদিও আজ স্তব্ধ;
সে কালি ঘুচায় মনের কালি, পাপী হতে পারে জব্দ॥

তোমার ভাষার সে কান্ডারীর কবে পাবো দেখা!
তোমার কথায় হবে কি সেই কাঙ্ক্ষিত সাম্য-রেখা!
কে বলে? -হয়নি কোনও ভুল!
সবকিছু বিভক্ত যেখানে, ভাগ হয়নি নজরুল?

গীতা-বাইবেল-কোরআন শরীফ যেদিন সাম্য পাবে;
তোমার ভাষার সাম্য কি সেদিন মানুষ-অমানুষের হবে?

"খেলিছ এ বিশ্ব লয়ে" হে শিশু কাণ্ডারী,
রহস্যময় সে খেলায় দেখি বয় সাম্যের তরী!
কিন্তু কবে ফুটবে আবার এক বোঁটায় দুটো ফুল,
কবে গাইবে "সাম্যের গান" কানাই-জোসেফ-হাসিবুল!!

চুরুলিয়ার দুঃখু মিঞা, বিদ্রোহী কবি, জানাই বিদ্রোহী সম্মান
হতে চাই "মোরা একই বৃন্তে দুটি কুসুম - হিন্দু-মুসলমান"॥