অনেক ধুয়া সহেছি আগুন পরশ নিবো বলে ,
পুঞ্জিভূত মেঘের ভেলায় ভেসেছি ,
অঝোর ধারায় বর্ষিত বৃষ্টিতে স্নাত হবে বলে ...
নিজের সুকুমার বৃত্তি বিলিয়েছি ঝাঁকের কৈ -কে বশীভূত করবো বলে !
দেখছি  ‘বাঁশের চেয়ে কঞ্চি দড় ‘,ঘনঘন বজ্রপাতে -
বুকে তোলপাড় ,ধরপড় !


স্বার্থের,পিরিতে পরে কত ফুল বিবর্ণ -ধূসর পলাশের সুরৎ নিয়ে-
হাঁটে-চলে ,ভাবে ছয়-দশ সবই সমান !
মূর্খ ,ভাবে বুদ্ধিমান !


মিথ্যা অহমিকায় লাঙ্গল যতোই সুচালু হোক না কেনো ,
তাতে মাটি কর্ষিত হতে পারে কিন্তু ,সেই কর্ষণে-
মাটি ফলনের উপযোগি হবে ,আমি বলি ‘না ‘!
তাই তো দেখি ,’ বান্দরের গলায় মুক্তার হার ‘...


আলোর পথে ,সত্যের পথে সঙ্গমের প্রকৃত সুখ-
সুবাস-সৌরভে মন মুগ্ধ -স্নিগ্ধ ,শৈবালের নিযার্সে সিক্ত !
বিপরীতে আকুলি-বিকুলি করেই ক্ষণ কেটে যায় ,
চিতায় ভষ্ম সময়ের ঝঞ্ঝা বুকে !


’ইল্লত যায় না ধুলে খাসলত যায় না মৈলে ‘, যদিও সত্য -
তবুও বলি ,এসো সম্প্রীতির পথে ,সৌহার্দের পথে ,সমতার পথে -
মিথ্যা মেকি পথ ছেড়ে -যদি শান্তি চাও ,আত্মার স্বজনকে বুকে তুলে নাও ,
এরাই তো তোমার খাটিয়া তুলে নিবে কাঁধে !
সাথে কী নেবে ,সম্পদ ,ক্ষমতা ,প্রভাব ,যত ছলা-কলা !
ভুল ,সব পড়ে রবে ,আলোহীন ,ছায়াহীন হয়ে তুমি একলা যাবে -
যতটুকু পূর্ণ  ,তাই-ই নিয়ে ,আর যত পাপ-তাপ সব তোমাকে পোড়াবে ,
ভয়াবহ অগ্নি সাগরে ...