আমি হব মাগো তোর ওই দ্বারের প্রহরী
তোর দ্বারে মা রইব জেগে সারাটা রাত ধরি।
যখন মা তুই ঘুমিয়ে র'বি, তোর ঘরে কেউ এলে
ঘরের বাইরে রাখবে বেঁধে মাগো তোর এই ছেলে।

ভাবছিস মা আঁধার রাতে করব ভুতের ভয়
ভুত পালাবে, ও মাগো তোর শুনলে পরিচয়।
আমার হাতে থাকবে মাগো তোরই দেয়া লাঠি
ভুতের বাবাও উধাও হবে খাবে যখন ঘা-টি।

শ্রেষ্ঠ মায়ের আমি যে এক সর্বশ্রেষ্ঠ ছেলে
বিশ্ব আজও মাথা নোয়ায় সেই পরিচয় পেলে।
বর্গীরা আজ নিখোঁজ যে মা, বিলেত গেছে ঘরে
পাকসেনারাও ঝাঁটার বাড়ি ভুলবে কেমন করে?

তাই তো ওরা এদিক ওদিক থাকে যে ওঁত পেতে
তোর ঘরেতে আগুন দেয়ার খেলায় ওঠে মেতে।
তুই জানিস মা, তোর এ ছেলে তোর পতাকা উড়ায়
তাদের জ্বালা সেই আগুনেই তাদের ধরে পুড়ায়।

মা তোর কিছু সন্তানও যে আছে লোভী-চোর
তোর গহনা চুরি করে, খোলা পেলেই দোর।
ভরসা রাখিস মাগো তোর এই ছোট্ট ছেলের 'পরে
শাস্তি দিতে তোর হাতে মা দেব তাদের ধরে।


আমিও এখন বড় মাগো তোর ছেলেদের দলে
নির্ঘুম রাত কাটবে কেন মা তোর চোখের জলে?
আমরা সবাই দাঁড়িয়ে দ্বারে - তাই দিয়ে তুই চুমা
এখন মা তুই চিন্তাবিহীন শান্তি-সুখে ঘুমা।