এ কোন সমাজকে তুমি ভয় পাও?
সমাজের এ কোন আইনকে তুমি ভয় পাও?
সমাজের এ কোন নিয়মকে তুমি ভয় পাও?
তুমি এই সমাজের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করে দ্যাখো
তারপরও এই সমাজ তোমাকে বাহবা দিবেনা
আর তুমি  ভুলক্রমে একটি খারাপ কাজ করে দ্যাখো পুরো সমাজ লাঠিসোঁটা নিয়ে
এগিয়ে আসবে তোমার পিছে ধাওয়া করতে ।
তুমি একমাস অসুস্থ হয়ে বিছানায় উপুড় হয়ে শুয়ে চিৎকার করতে থাক,
এই সমাজ মানবতা দেখাতে চাঁদা তুলে তোমাকে একদিন ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাবে
আবার সুস্থ হয়ে গেলে খুঁটাও দিবে।
তুমি একসপ্তাহ অনাহারে পেট মাটিতে চেপে যদি কর চিৎকার,
এই সমাজ একবেলা খেতে দিয়ে করিবে তোমায় ধিক্কার ।
আমি তোয়াক্কা করিনা এই নিয়মের
আমি ধার ধারি না তাদের এক বেলা আহারের।
আমি পিষে ফেলি এই আইন, এই নিয়মকে
আমি আমার মতো
আমি অন্য কারোর মতো হতে চাইনা।
আমি আমার সৃষ্ট নিয়মে, আমার সৃষ্ট পথে চলি
যদিও এই পথ হয় কঠিন থেকে আরও কঠিন,
ক্ষুরধার স্রোতের মতো তীক্ষ্ণ।