বুকের পাঁজরে একটা ফাটল
হৃৎপিন্ড সেতো ঘুনপোকায়-
খাচ্ছে কুরে অবলীলায়,
চোখের কোণে গভীর ক্ষত
অশ্রু ঝরে অবিরত।

কলিজা পুড়ে ছাই হয়েছে
ফুসফুসেতে জং ধরেছে
মগজটা আজ কাজ করেনা
বুদ্ধিতে আর শাণ ধরেনা।

অস্থি গুলোর মজ্জা নেই
মাংসপেশীর সজ্জা নেই
পায়ের পাতা হোঁচট খাওয়া
চুল গুলো সব হারিয়ে যাওয়া।

দৃষ্টিতে আজ আধো-ছায়া
জড়িয়ে আছে কেবল মায়া
শত কষ্ট বুকে সয়ে
জীবনটা আজ যাচ্ছে ক্ষয়ে।