=
স্বপ্ন-তো যখন, তখন- স্ব-প্রণোদিত-ভাবে, তেড়ে আসে৷
ঘুমন্ত পৃথিবী'র মানুষ-গুলো'র নয়নে, নয়নে'র পেলবে৷
স্বপ্নে'র জাত উদঘাটন করা- বড়ো'ই মুশকিল!
কখন যে- কোন বেশে, ঢুকে পড়ে, রাতে'র গভীরে?
তা- বুঝে ওঠা- দায়৷
দিবা স্বপ্ন, কি- স্বপ্ন?
কে জানে?
কাল রাতে'র স্বপ্নে'র চাল' ছিলো-
কিন্তু-
কাড় ছিলো-না৷
জানি-না, কাড়-বিহীন চাল৷
কিংবা-
চাল-বিহীন ঘর হয়, কী না৷
তবে- ভাবনা'র জগত-টা যেভাবে'ই, সাজাই-না কেনো-
স্বপ্নে'র-তো কোনো অবয়ব রয়েছে, বোলে- মনে হয়-না৷
যদি থাকতো, তাহলে- যখন, তখন- এভাবে কী-
মানুষে'র চোখে'র মুদনে, ঢুকে পড়তো? পড়তো-না৷
যাক সে কথা৷
স্বপ্নে'র পৃথিবী'র ভেতরে'র দুই মনুষ্য-কে,
ঘিরে গল্প'ই এখানে প্রযোজ্য৷
তাদের রসায়ন-টা হচ্ছে,
তাদের ডিম পাড়া হয়-না৷
অথবা-
হলেও উম দিতে পারে-না৷
আবার-
অ-প্রতীতে উম দিলেও, বাচ্চা ফুটে বের হয়-না৷
তাই প্রভাবে, প্রলোভনে আমার সেখানে-
উৎপাদক বলতে আপ্যায়নে'র ভেলকি-তে,
চোখ টেপা'র  এক-টা আয়োজনে'র পর্ব-
শুরু করতে যাচ্ছিলো৷
কিন্তু-
স্বপ্ন-ব্যাটা বড়ো- হারমাদ,
নিয়ে গেলো- জাগ্রত পৃথিবী-তে৷
সীমান্তে'র শেষ ঠিকানায়- এসে,
বললো- আজ যাই, বাই বাই......৷
আরও বললো- পুণরায় আসবো, কী-
শেষে'র যবণিকা'র শুরু থেকে?
আমি বললাম-........... না৷৷
=
রচনা-কালঃ ২৮/১১/২০১২ইং
=
মার্জিত রূপ- সংস্করণে৷
=