=
কেবল যাতনা, কেবল বেদনা,
বিষাদে বিষাদে- ভরে গেছে,
হৃদয় কাঞ্চিভরম!
কোথাও নেই চাওয়া- ক্ষমা,
নেই অভিশাপ মুক্তি'র কপাট,
নেই ক্রন্দনে'র বিলাপ!
অথচ-
ক্ষতি'র আধুলি- শতো সহস্র ডলার,
এখন সেই চেহারা-প্রকৃতি-গঠন আত্মা'র ক্যান্সার,
সুখ-শান্তি'র আগমন- পর্দা নির্মিলিত,
সংসার বি-শৃঙ্খলা'র আধার!
সকল কর্মকান্ড অ-নিমেষ স্থবির পাথর!
হৃদয়ে'র নিসৃত রক্ত-গলি জল-ধারায়; সমুদ্র-স্রোত!
দিশেহারা জীবনে'র অলি-গলি'র পাহাড়ী ঢেউ,
তোমার ছিটানো জরায়ু'র বিষ মুছে দিয়েছে,
পথ-ঘাট সংকীর্ণ সম্ভ্রম!
সৌন্দর্যে'র সৌরভ যৌবণে'র সু-দীপ্ত সোহাগ করেছে-
অর্থ-বিয়োগ, রূদ্ধ শহর-গমন, আভিজাত্য সঙ্কট,
সু-খ্যাতি বি-ভ্রম, বিত্ত-বৈভবে'র অনটন.
গ্রাম-কে করেছে- গৃহ-বন্ধি৷
এমন-কি,
স্ত্রী সন্তানের মুখ বর্জিত জীবন সংঘাত,
কাটলেটে'র ভোজন- বিভ্রাট,
পোষাকে'র দারিদ্র-ক্লিষ্ট চিহ্ন রং কতিপয়!
বুদ্ধি'র জোয়ার অ-নিয়মে'র
সীমাদৃত জ্ঞানের বহিঃপ্রকাশ- পিঞ্জিরা-বদ্ধ!
কাব্যে'র চরিত্র দুঃখ ভারাক্রান্ত সময়ে'র গতি-বেগ-
দুঃসহ যন্ত্রণা-দায়ক, তৃপ্তি মরিচিকা'র খোলস!
মুছে দিতে চায়- কালোত্তির্ণ কবি'র গৌরব প্রমাণ!
তোমার অবরোধে- পাক ধরে, মৃত্যু-ভীতি!!
=
রচনা-কালঃ ০৭/০৭/২০১২ইং
=
মার্জিত রূপ সংস্করণে৷
=