কখন ভালবাসার অাবির্ভাব হয়
সেটা কেউ বলতে পারেনা,
ঠিক যেন- চৈত্রের অাকাশে হঠাৎ বৃষ্টির মতো
ঘটে যাওয়া কোন এক ঘটনা।


সেটা অাপনাকে ভাবাতে ভাবাতে
নিয়ে যেতে পারে পৃথিবীর কোন এক
চির-অচেনা রাজ্যে, কাজের ফাঁকে;
হঠাৎ যখন ভাবনার বিভোরতা কেটে যাবে
তখন হয়তো- ভাবতে ভাবতে এক টুকরো হাসি
ভরে দিয়ে যাবে অাপনার হৃদয়ের জগতটাকে।


তখন হইতে ভালবাসার পরীটি অার অাপনার
পথ ছাড়বেনা; সব সময় যেন পথরোধ করে রাখবে,
অাপনার হৃদয় জগৎ, ডায়েরির পাতা অার
মানিব্যাগের কোন এক অংশ জুড়ে;
সব সময় অাপনার পাশে সে যেন কান পেতে অাছে।


চিঠির বিলুপ্তে হয়ত অাপনি কথামালার ঝড় তুলবেন
সামাজিক মাধ্যমে বা মোবাইল ফোনের ক্ষুদে বার্তায়;
অথবা মোবাইল ফোনে অালাপ-চারিতায় মেতে থাকবেন-
সেই পরীটির সাথে,
যার প্রেমে অাপনি নিজেকে হারিয়েছেন,
সবার অজান্তে।


অনেকদিন পর,
হঠাৎ একটা ঝড় এসে হয়তো অাপনার হৃদয়ের
জগতটাকে এলোমেলো করে দিবে,
অাপনার ভাবনার জগতটা থমকে দাঁড়াবে-
কোন এক বাঁধার দেওয়ালে;
অাপনার বেদনার শোকে ঝরে পড়বে
সেই গোলাপ ফুলটিও,
যে ফুলটি অাপনার ভাবনার জগত রাঙাত।


অাপনার হৃদয় নদীতে বেদনার বরষা হানা দিবে
অার অাপনি তখন দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলে-
চিন্তায় মগ্ন হবেন অার মাঝে মাঝে হয়ত
সিগারেট ফুঁকাতে ফুঁকাতে জানালার পাশে এসে দাঁড়াবেন
অার ভাববেন এলোমেলো চিন্তায়।


অতঃপর, সব হারিয়ে অন্যজগতে অাপনার পদচারণা,
যা হয়তো কখনো ভাবেননি, এই টুকুও ভাবেননি
অাপনার ভাবনার হৃদয়ের মানুষটি চলে যাবে দূরে-
অাপনার কাছে রেখে যাবে সে অজস্র স্মৃতি,
অজস্র কথামালা;
অবশেষে অাপনার হয়তো কিছু নেই-
শুধু হাহাকার! অাপনার হৃদয়টি যেন সাহারা মরুভূমি!
এই যেন বেদনা বিধুর ভালবাসার ইতিকথা।


রচনাকাল : ১০ জানুয়ারী, ২০১৭ খ্রিঃ