পৃথিবীটা আজ সর্বব‍্যাপী ধূ-ধূ প্রান্তর!
একটি কবিতা লিখব, একথা শুধু ভাবি মনে অবান্তর!


এখানেও নাকি একসময় প্রচুর ভালবাসা ছিল!
রূঢ়তার অগ্নি উল্লম্ফন করে সাহিত্যিক বহু কথাই বলছিল।
বিচ্ছেদের দিনে হয়ত পুড়ে ভস্ম হয়ে গেছে সেইসব!
দৃষ্টির আড়ালে অবিকার বেঁচে থাকে কারো অলীক অবয়ব!


ছারখার হয়ে গেছে পৃথিবীর সব মায়া মমতার পরিতোষ!
সবুজ শ‍্যামল তরু ছায়ায় একে অপরের চোখের দৃষ্টিতে-
বিকশিত হতো আক্ষরিক অর্থের বহু শব্দ কোষ!
মুক্ত আকাশ তলে ডানার নৃত্যে-
অচিন দিগন্তে উড়ে গেছে হরেক রঙের পাখিদের প্রমোদ।
নদী সমুদ্র স্নিগ্ধ সমীরণ হারিয়ে গেছে সময়ের করুণ বিরহে,
সোনালী রঙের উজ্জ্বল দুপুরে রচিত এক বিমগ্ন শারদ;
কিংবা রুপালি বিকেলের শান্তির পরশ; দারুণ উৎসাহে-
সবকিছু দিয়ে এক নারী অন‍্য এক পৃথিবীর বুকে-
অনন্তকাল থেকে যাবে পরম সুখে!


ক্ষণিক প্রমত্তে আত্মা বিকিয়ে সে আজ বিখ্যাত বদান‍্যতা।
পড়ে আছে এ ধরায় তাঁর রেখে যাওয়া শুনশান ম্লান শূন্যতা!