*                 ভারতের স্বাধীনতা
                   অজিত কুমার কর


ভারতমাতার পায়ে বেড়ি, ভাঙার জন্য কঠিন পণ
শপথ নিল ভারতবাসী যায় যদি যাক, যাক জীবন।    
               মহান নেতার উদাত্ত ডাক
               সাড়া দিল যুবা এক ঝাঁক
    সুভাষ যেন অগ্নিশিখা করতে পারে সব দহন।
                সুভাষ নামেই আতঙ্ক ভয়
              ব্রিটিশ শাসক পায় পরিচয়
   সবার চোখে ধুলো দিয়ে ছদ্মবেশে তার গমন।
            দুঃসাহসী আজাদ হিন্দ ফৌজ
                কর্মকাণ্ড খবরে রোজ
  দেশের জন্য মরণ হলে, সফল হবে সেই জীবন।
  ভারতমাতার মুক্তিযজ্ঞে ছোটো বড় সব শামিল
হার না মানা অদম্য জেদ, এমন শক্তি নয় অমিল।


এ যে বিনয় বাদল-দীনেশ শহীদ ক্ষুদিরামের দেশ
  জীবন দিয়ে বুঝিয়ে দিল, যুবশক্তি হয় না শেষ।
                 সূর্য যতীন গান্ধী ভগৎ
                মনে ওদের মুক্তি শপথ
  অরবিন্দ বারীন সুশীল বজ্রকঠিন ওদের বেশ।
                   দিবারাত্র কর্মসূচি
                  উচ্চমার্গের অভিরুচি
স্বপ্ন সবার আনবে স্বরাজ নেইকো কারো ক্লান্তি-রেশ।
                 শহিদ রক্তে সিক্ত মাটি
               দেশপ্রেম যে নিপাট খাঁটি
   নিদ্রা বিহীন নিশিযাপন, সজাগ দৃষ্টি নির্নিমেষ।
ভারত যে দিন স্বাধীন হ'ল উঠল রেঙে নীল আকাশ
      গর্বভরে উড়ল নিশান মুক্তি পেল দীর্ঘ শ্বাস।