তপ্ত বৈশাখী মধ্যাহ্ন, ঘনাল আঁধার
নিস্পন্দ বিটপি-শাখা অসহ্য গরম
থমথমে চারিদিক আসন্ন প্রলয়
উঠিল সহসা ঝড় সব লন্ডভন্ড।
তরুরাজি ধরাশায়ী ছিঁড়ে গেল তার
চালাঘর গেল উড়ে দুর্দশা চরম
ঘূর্ণির তান্ডবনৃত্য হানে বিপর্যয়
নিদারুণ পরিণাম মর্মন্তুদ দন্ড।


কালবৈশাখীর সাথে ঝমঝম বৃষ্টি
স্বস্তির নিশ্বাস ফেলে শ্রান্ত প্রাণীকুল
আকাশের নিচে বাস জ্বালা অন্তহীন।
কেন হে পর্জন্যদেব এহেন কু-দৃষ্টি
কাটাবে কেমনে রাত জননী ব্যাকুল
গৃহহীনদের দশা অতীব সঙ্গীন।