পাহাড়-ভরা গাছগাছালি
ঝর্না গেছে নেমে
দিনেও আঁধার এমন ঘন
পথটি গেছে থেমে।


বাঘের ছানা দেখছে বসে
নিজের ছায়া জলে
দেহে ওর অজস্র দাগ
যাচ্ছে না তো গুলে!


ডোরাকাটা একটুও নয়
কেবল চাকা চাকা
গুণে দেখে সাতশো পঁচিশ
সারা দেহেই আঁকা।


নিজের দিকে দেখল চেয়ে
একই রকম দাগ
ডোরা ছাপ একটিও নেই
তাই বলে না বাঘ!


মা তার গেছে গভীর বনে
পেটের বড় দায়
দাগ রহস্য জেনে নেবে
যদি না ভুলে যায়।


শিকার-মুখে আসতে দেখে
ছোটে বাঘের ছানা
ছোটো এক চিতল হরিণ!
হবে জবর খানা।


খাবার পেয়ে ভুলেই গেল
প্রশ্ন মনে যত
এখন ওরা ঝোপের আড়ে
মাংস খেতে রত।