সুরের আকাশে ছিলে তুমি ধ্রুবতারা
দিনে নক্ষত্রপতন আঁধি এলো নেমে
উড়ন্ত গায়ক পাখি অবরুদ্ধ ফ্রেমে।
খাঁচার আগল খুলে হলে আত্মহারা
আপামর বাঙালির ঝরে অশ্রুধারা।
মজেছিল শ্রোতৃবৃন্দ দোহারের প্রেমে
সুনামি-দাপটে গেল চিরতরে থেমে
অসমাপ্ত যত কাজ হবে কার দ্বারা।


অকাল বিয়োগব্যথা কেমনে পাসরি
স্মৃতিপটে সমুজ্জ্বল ওই হাসিমুখ
মনের জানালা খুলে শুধু খুঁজে যাই।
শূন্যতাই চারি দিকে ডুবে গেছে তরি
কাতর বিহ্বল দেশ শোকস্তব্ধ মূক
কোকিলাও যেন বলে ‘বসন্তে সে নাই’।