তোমার সততা আমায় মুগ্ধ করে
আমি হয়ে যাই বিভোর
ফিরে আসি তাই আবেগী নদীর তীরে
ভালোবাসি বলে জানো কী!


সত্যিকারের ভালোবাসাবাসি ছেড়ে
মিছে ছুটে তারা দেখো ঐ
হরিণীর বেশে বিরহীনি জেগে রই
আবেগী নদীর প্রেয়সী।


হৃদয়ের পটে, মন্দিরে কাঁসার ঘন্টা
বাজিয়েই যাই অহর্নিশ।
তোমাতে বিলাই মনের গভীরে রাখা,
সরস ভালোবাসা প্রিয়।


নীরবতায় ছুটি, চলি মনেরই অলিগলি
স্বপ্নগুলো গোমরে কাঁদে
জাগন্তিকার অচিন সুরের বীণায়,
কে গো তুমি!ভাবালে আমায়।

তোমার মায়াবী চাহনি,মানঅভিমান  
তীব্রতর হয়ে সঙ্গমে,
লিপ্ত হয় যে দেহের সাথে দেহের
মনের সাথে মনের।


ওষ্ঠে রাখি সদা রাঙা ওষ্ঠযুগল
মধুর আবেশে তুমি বয়ে আনো মনে,
হৃদয়ে শীতল অনুভূতির ছোঁয়া
বিরহী এ মন নাচে তাই।