আইনবিজ্ঞানের মতবাদ পড়ে আমার কোন কাজ হয় নি!
অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অব জাস্টিস;না তাও না।
ডুবে গেছি বার্কসায়ারের মতন একটু একটু করে।
কারণ আমার ভেতরেও কোন আলো ছিল না,শুধুই অন্ধকার!
পিওর থিউরি বুঝে কী লাভ এখন;কেলসনের পিওর থিউরি।
নারী নির্যাতনই দেখলে শুধু;পুরুষ নির্যাতন দেখলে না।
সাধারণ আইনই বুঝি না;বিশেষ আইনের বায়না!
তারচেয়ে টাইটানিক হলেই বোধহয় ভালো হতো,বড্ড ভালো।
দ্রুতবিচার দিয়ে কি ভাজা খাব মানব পাচারের এই দেশে!
কিসের এত ইনভেস্টিগেশন ;কিসের ইনকোয়ারি,
কিসের এত চার্জ গঠন আর কিসের সমন জারি!
আগাম জামিন নিয়ে বসে আছি,পারলে এসে ঠেকা।
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!


কনস্টিটিউশনাল ডকট্রিনগুলো আজ মস্তিষ্কের খাতায়,
ভেবেছিলাম থিউরি অব এভরিথিং; ইয়েস স্ট্রিং থিউরি।
রোমান সাম্রাজ্য থেকেই আমি আইন কুড়াই; উদ্ভট আইন!
ওরে বাবা! এখন নাকি অ্যাজ ইট ইজ।
কখনো দৌঁড় দেই প্রিভি কাউন্সিলে বোবা সাক্ষী হয়ে,
আবার কখনো ফিরে আসি এআইআর,বিএলডি -
আর আমারি দেশের ডিএলআরের খোঁজে;
আরে বাবা -আমি কি বলেছি এখানেই শেষ!
কিসের এত স্টেয়ার ডিসাইসিস,কিসের  অবিটার ডিকটা !
রেশিও ডিসাইডেণ্ডির কোন বেল আছে আর!
কিসের এত কম্প্লেইন্ট-প্লিডিং;কিসের ন্যায়বিচার।
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!


হিমারিয়া নীতি ভেবে অনুমান করতে পারি নি মেনস্ রিয়া
আইনগত ভুল না কি ঘটনাগত;কোন জুরিসডিকশন বুঝি সেটা?
না কি রেস সাবজুডিসের ভিড়ে রেস জুডিকাটা,
যেটাই হোক না কেন,বার্ডেন অব প্রুফতো আমারি!
বুঝিতো চূড়ান্ত কিংবা পরার্থ দায়;ডিজিটাল নিরাপত্তার তীরে এসে!
বাজী চুক্তি আজ বৈধ করে দিলাম অ্যালুভিওন-ডিলুভিওনের মতন।
কিসের এত মিতাক্ষরা ; কিসের দায়াভাগা !
কর্পোরাল-ইনকর্পোরাল বলে লাভ নাই আর।
কিসের এত লিটারাল-গোল্ডেন ;কিসের ইন্টারপ্রিটেশন।
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!


আইনের আবার অতিরাষ্ট্রিক প্রয়োগ;কত দামী কথা!
বৈপিত্রেয় না কি বৈমাত্রেয় সেটা জানার কোন দরকার নাই আর
স্বাধীন সম্মতি আজ থেকে নির্বাসিত,অগ্রক্রয় আর চলবে না!
চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আজ থেকে বন্ধ ;কিসের আবার ম্যান্ডাটরি!
কপিরাইট কিংবা ট্রেডমার্ক করে লাভ নেই আর!
নাবালকের চুক্তি আজ থেকে বৈধ করে দিলাম,
কিসের ভয়েড অ্যাব ইনিশিও!
মোহরী বিবি বনাম ধর্মদাস টেনে এনে কোন লাভ হবে না আর।
কিসের এত  থিউরি অব পানিশমেন্ট;কিসের বেসিক স্ট্রাকচার!
জুডিসিয়াল অ্যাক্টিভিজমের কোন দরকার নাই আর।
কিসের এত রুল অব ল’, কিসের জুডিসিয়াল রিভিউ বারে ,
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!


আউল-রদ নীতিতো বোঝেই না ;আবার প্যাক্টা সান্ট সারভেণ্ডা!
পারসোনা নন গ্রাটা বললেই আর রেস গেসটি হয়ে যায় না!
ডোমিসাইলতো বহু দূরের কথা;ভাত-কাপড়ই  জোটে না আবার দই!
ডকট্রিন অব লিসপেডেন্স চলবে না আর;সব বন্ধ!সব...
এস্টোপেল নীতি দিয়ে কি করবে আর!
ডিক্রি,আদেশ,রায় বুঝার কোন দরকার নেই এখন!
বাংলায় লিখে আবার  ইংরেজিতে অনুবাদ;কত বড় কলিজা!
বোধহয় ক শ্রেণির মাল খেয়েছে না হয় গাঁজার নেশা,
তাড়ী কিংবা পঁচুই ভেব না;আজকের দুনিয়ার বাবা!
কিসের এত মূলনীতি আর কিসের মৌলিক অধিকার।
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!


জবানবন্দি,জেরা,পুনঃজবানবন্দির ক্রম উল্টে যাক আজ
করফ্যু চ্যানেল কিংবা লোটাস কেইসের মতন।
মনরো ডকট্রিন দিয়ে কি করবে আর;কি করবে নির্বাচন নীতি!
সব কিছু ভুলে যাও;সরকারি পদ,বেতন,বৃত্তি-পেনশন।
ভুলে যাও ভেস্টেড-কনটিনজেন্ট ইন্টারেস্ট!
ভুলে যাও রিডেম্পশন,ক্লগ,ফরক্লোজার।
ভালোবাসা আজ মর্টগেইজ রেখেছি;তামাদি হয়ে গেছে সময়ের স্রোতে...
কোন দণ্ড চলবে না আর;কিসের এত অ্যাডমিশন কিসের কনফেশন,
সবকিছু আজ নিলাম করে দিলাম;নিলাম!
কিসের এত লিগ্যাল সিস্টেম আর কিসের অধিকার-কর্তব্য।
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!


লেজিটিমেইট এক্সপেকটেশন বলতে কিছু নেই আর,
কিসের আবার পাওয়ার টু ডু কম্প্লিট জাস্টিস!
রেফারেন্স টেনে লাভ নেই আর;কিসের  আবার রিভিউ
কিসের এত এডিআর সিস্টেম,কিসের লিগ্যাল এইড!
নিজেই হয়েছি দেউলিয়া আর পপার সেজে ঘুরি।
মানি লন্ডারিং করে প্রাসাদ গড়ি বিশেষ ক্ষমতার জোরে।
সব কিছু আজ মুক্তি দিলাম; দিলাম অব্যাহতি!
প্লিয়া অব অ্যালিবি বলার কোন যুক্তি নাই আর
যত পার ক্রোক করে নাও কৃষকের ফসল;
শুধু হত্যা কেন গণহত্যা চালাও একের পর এক!
কিসের আপিল,কিসের  রিভিশন!
সবকিছু আজ খালাস করে দিলাম;খালাস!
কিসের এত আইনের সংশোধনী; কিসের লিগ্যাল প্লুরালিজম ।
কিসের এত ডিউ প্রসেস ;কিসের বাড়াবাড়ি।
বড়ই সাংঘর্ষিক কথা শোনালে কবি;বড়ই সাংঘর্ষিক!