কাশ্মীর কেন? ফিলিস্তিন কেন? রাখাইন কেন? কোথাও-
"মানবতার কোন সীমানা নেই।"
পৃথিবীর বুকের সীমানাগুলো রাজনৈতিক মাত্র!
মানবাধিকারের বিচারে-
                              নেই স্থান-কাল-পাত্র।
শুধু তাই নয়- প্রাণীদেরও অধিকার আছে,
                 -প্রকৃতিরও অধিকার আছে,  
                              -অধিকার আছে সবার বেঁচে থাকার।
কে তুমি?
             কি তোমার প্রয়োজন?
                                      -কেড়ে নেবার এসব অধিকার?
কে তুমি?  মরনঘাতি কোন জীবানু?
                    নাকি অসুরের প্রেতাত্মা?
                                             নাকি ইশ্বর সবার!
না, না, এসব কিছুই না!
তুমিও মানুষ- আমিও মানুষ, পৃথিবীর সব জনপদের সবাই মানুষ!
তবে কেন- অন্যকে বিনা কারনে মৃত্যুর মূখে ঠেলে দেবার চক্রান্ত করো বারবার!
ক্ষান্ত দাও মানুষের অধিকার হরণের খেলা- বন্ধ করো শুধু নিজ স্বার্থ উদ্ধার!


শোন হে রাজনীতিবিদ, চরমপন্থী, ধর্মান্ধ, উগ্র জাতীয়তাবাদের ধারক-
অন্যের অধিকার হরণ করো যদি- তবে তুমি মানবতার ঘাতক, নিকৃষ্ঠ মনের বাহক।
ভালোবাসা না থাকলে ওটা মন না, মন না থাকলে সে মানুষ না!
বিশ্বের বুকে যারা তোমরা নিজেদের মানুষ বলে দাবী করো-
সবার মূখেই- একই আওয়াজ হোকঃ
         "মানবতার কোন সীমানা নেই"
                  -মানবতার জয় হোক।