• অল্পে-সল্পে রিকশাওয়ালা
-- সায়ন দাস (প্রেম)


তিলোত্তমার পথে ঘাটে থাকি মোরা দুঃখ সুখে
নিত্যনতুন দিনযাপনে লড়াই করি হাসি মুখে।
আমাদের পিঠে চড়ে প্রতিদিন বাবুরা স্যুট-বুটে,
বেড়াই বয়ে শহরতলি এই রুট থেকে ওই রুটে।
আমাদের জীবনেও কষ্ট আছে তবুও চলি হাসি নিয়ে,
ভার সামলাই তিলোত্তমার, প্রাণের প্রিয় রিকশা দিয়ে।
আমরা বাবু এই জীবনকেই ভীষণ ভাবি দামি,
মোরা সকাল হতেই ভার বহনের জন্য পথে নামি।
সততা আর ভালোবাসাতেই মোরা উপার্জন করি,
সমাজ নামক গাড়ির তলায় মোরা তবুও পিশে মরি।
আমাদের জীবন ছন্নছাড়া, কিন্তু আমরাও বাঁচতে জানি,
সুখ দুঃখ হাসি গান কেউ আমরা জীবন মানি।
সমাজ মোদের পিশে দেয় রোজ বাবুদের জুতো দিয়ে,
যন্ত্রনা সামলে লড়ি আবারও জীবনের গান গেয়ে।
আমাদেরও তো স্বপ্ন আছে, আছে আকাশ ছোঁয়ার নেশা,
হাজার হাজার স্বপ্ন নিয়ে মোদের বহন করাই পেশা।
আমাদেরও আছে সখ আহ্লাদ একটু পরিবর্তন আনার,
জীবন নামের অর্থ বোঝা আরও অনেক কিছু জানার।
মোরা ওই রাজার মতো বুক চিতিয়ে রোজ আকাশ নামাই মাটিতে,
স্বপ্ন দেখি নতুন নতুন আর হাসি ফোঁটাই কোটিতে।।