নিস্তব্ধ পথিক দাঁড়িয়ে আছি একা,
ঠাঁই হীন যন্ত্রণাতে পূর্ণ হয়েছে বুক।
নিঃসঙ্গতার এক ধুঁ ধুঁ বালুচরে -
খুঁজতে এসেছি ক্ষণিকের দীর্ঘশ্বাসের সুখ।


সেখানে আমি রোদের সঙ্গ খুঁজেছি,
সে সঙ্গ দিতে পারে নি আমায়।
বরং তার প্রখরতায় ঝলসে দিয়েছে আমাকে,
জ্বলে পুড়ে খসে পরেছে আমার চামরা।
পরে আমি বালিকণার সঙ্গ চেয়েছি,
তার সঙ্গ চাইতে গিয়ে আমি-
পদপিষ্ট হয়েছি হাজারো নিষ্ঠুর পা এর।
ছিন্নভিন্ন হয়েছে আমার রক্তে ভেজা মাংস।
থেতলে গিয়েছে আমার শরীর।
শেষে আমি বাতাসের সঙ্গ খুঁজেছি
বাতাসের তীব্র বেগে উড়ে গিয়েছে  -
আমার জীবনের বাকি থাকা ছিটেফোঁটা অস্তিত্ব।
এ কেমন নিঃসঙ্গতার নির্মম ধুঁ ধুঁ বালুচর!