---------------------//---


গরীবের সংসার ভিটে-বাড়ি নেই
ভাসমান তাদের জীবন ;
                         মানবের ধারে আশ্রয় খুঁজে
             আশ্রয় দিবে, কে আছো-গো এমন ।


করিবো কাজ নেই মোদের লাজ
সম্বল আছে শুধু ক'টি ছানা ;
             প্রয়োজনে সে গুলি দিবো তোমাদের
              কাজের বিনিময়ে শুধু দিবে খানা ।


বাড়ি বাড়ি ঘুরি, ভুখা অনাহারি
অবশেষে পেলো মাতা গুজিবার ঠাঁই ;
                 ক্ষুধা নিবারণে, দিবে শিশু কাজে
            কাজের বিনিময়ে যেথায় খাদ্য পাই ।


এমনি ভাবে কচি শিশু তাদের
অন্যে বাড়িতে পায় ঘরের কাজ ;
                      দু:খে কষ্টে জীবন চলে তাদের
                    তবুও মনেতে নেই কোন লাজ ।


জানেনা তারা পার্থিব জীবনের মানে
জীবন কাটে তাদের কাজের টানে ;
         শৈশব , কৈশোর ফেরিয়ে আসে যৌবন
          সংসারী হতে চায় তাদের বৈরাগী মন ।


এমনি একদিন আসে 'আয়মনার' সু-খবর
তাকে নিয়ে যাবে এক নতুন বর ;
                    খুশিতে বিভোর তার বিরহী মন
              সংসার সাজাতে তার মন উচাটন ।


কিন্তু এ সুখ তার সয়না বেশি দিন
হঠাৎ সুখের স্বপ্ন ভেঙ্গে হয় ক্ষীন্ ;
               আধ্-পাগল স্বামী তাকে বাসে ভিন্
            আবার, সেই পরের কাজে কাটে দিন ।


বিনিদ্র রজনীতে বসে ভাবে একা একা
হায় ! এ কপালে বুঝি নাই সুখের দেখা ;
         এসব ভেবে চোখের জলে ভাসে তার বুক
          'আয়মনা'দের জীবনেই বুঝি শুধু দুখ ।।


-------------//-------------


রচনাকাল :- ১৭ই এপ্রিল ; ২০১৮
  নিজ ভবন ; ব্লাইত ; নিউকাসল ।