তাল গরমে বেতাল, ভাদ্রের আকাশ হলদে রাঙা হাসিতে,
হাঁকডাক নেই নীরর ঝরে জল, ভিজে যায় মায়ার আঁচল।
লুকায়িতমুখ কালো চাঁদোয়া, রহস্যের ফাঁদে বন্দি মনমম,
অঙ্কুরিত সুখ পালায়- আতুর ঘরে, রক্ত-মাখা অব-গাহনে।

ক্ষণে রং বদলায় প্রিয়তমার অন্তর দহনে গোপন ব্যাথায়,
কে দিবে সুখের সন্ধান ভেদিবে কে পাঁজরে ঢাকা ইন্দ্রধনু।
ভালোবাসে, কোমল ছোঁয়াতে চুপসে যায় লজ্জায় লুকায়,
সুখেই হেলে পরে কলমি ডগায়, হাল ছেড়ে সই’য়ের গায়ে।

ভালোবেসে’ই- হাত ধরেছ, বহুবার দূরে সরেছ অভিমানে,
কথায় কথায় রাগ করেছ! চন্দ্র মুখ ঢেকেছে কালো মেঘে।
কোথা ঘর কোথা ঠিকানা, কত দূরে ভেসে যাও অজানায়,
খুঁজে বেড়াই নির্লজ্জের মতো, অন্তগত চোখের সীমানায়।