এই যে, সমাজ-জাতি-ধর্ম  
ক্ষেত্র বিশেষে প্রকটিয়া মর্ম।।
যেক্ষণে যখন সভ্য চরাচর
ভ্রষ্টিয়া স্রষ্টা উম্মাদ বিস্তর।।
সেক্ষণে সেরূপ বধিবিধান
প্রকটে স্রষ্টা ধর্ম সংস্থাপন।।
এভাবে ধর্ম হয়েছে চূর্ণ জাতি জাতি
প্রতি আস্থা একি রাস্তা, ধর্মে কর্মে মাতি।।
উদ্দেশ্য-বিধি অভিন্ন - এক পথ
কর্ম আচার বিভিন্ন তাই-ত দ্বিমত।।
বানিজ্য-শাসন-শিক্ষা'র লাগি প্রচারণ
এক ক্ষেত্রে জাতি-ধর্মে হই সংমিশ্রণ।।
মোরা একটি বৃন্তে ফুলের পাপড়ি
বিভিন্ন রঙ্গে রাঙ্গা অংশ তারি।।
মত পন্থার বিভেদ ইঙ্গিত-ইসাড়া
হয়ে যাই অন্ধ, বর্ণ বাদি আত্মহারা।।


" অন্তকীর্তি " কাব্যগ্রন্থেরর অন্তর্গত।
( প্রথম প্রকাশ ২১শে বইমেলা ২০১৬)