দুর্ঘটনায় পুড়ে গেল ভাসান টেকের বস্তি,
নীল আকাশের নিচেই তারা, খুঁজে নিল স্বস্তি।


বস্তি বাসীর কাঁথা বালিশ, ঘুমানোর চাটাই,
সর্বগ্রাসী আগুনে তা পুড়ে করল ছাঁই।


কোটিপতির বাড়ি পুড়লেও, থাকবে কোটিপতি,
বস্তি বাসীর শেষ সম্বল, ঘরের থালা-বাটি।


সহায় সম্বল নাই বলে, অসহায় তারা আজ,
পুরুষের পাশে মহিলারাও, করছে অন্যের কাজ।


মেয়েরা মালিকের বাসায়, কাজ করে দিন-রাত
তবুও মালিক হয়না খুশি, গায়ে তুলে হাত।


অভাব কি জিনিস ধনী লোকের, নাইতো অভিজ্ঞতা
বুঝবেন তারা কেমন করে অনাথ-দুঃখীর কথা।


গৃহহীনরা কাজের খোঁজে, আশ্রয় নেয় ঢাকায়
দু'বেলা আর এক বেলা খায়, যখন যেমন পায়।


গৃহকর্মীর প্রতি মালিকের যদি,থাকে স্নেহের ছোঁয়া
তাহার জন্য করবে সদায়, অন্তর ভরে দোয়া।


প্রতি নিয়ত বিপদ থাকে, মানুষের চলার পথে
কাটবে বিপদ চলতে পাড়লে, সতর্কতার সাথে।
      
                       --সমাপ্ত--
                          (রচনা কাল-০২/০২/২০১৯)