মানবী
     ✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য


ভালোবেসে তোমায় প্রেমিক হতে চেয়েছি যতবার,
কবি হয়ে ততবার লিখে যাই তোমার নামে কবিতা।
তবে কি কবিরাই সত্যিকারের প্রেমিক,
না প্রেমিক হতে হলে কবি হতে হয়?
অজানা উত্তরে আবেগ মিশ্রিত প্রেমে তোমায় নিয়ে
লিখেছি শত কবিতা, অপ্রকাশিত-অসমাপ্ত উপন্যাস,
এবং ডেকেছি যত কাছে তোমায়-
প্রত্যুত্তরে কেবল নিঃশব্দে মাথা নাড়িয়ে,
পূজারীর অর্ঘ অস্বীকার করে তুমি চলে গেলে
পাথরে গড়া শিল্পীর তৈরি সাদৃশ্য মূর্তি হতে।


কিন্তু যে কবির লেখা কবিতা মন্ত্র হয়ে যুগ-যুগ ধরে
তোমার প্রাণ প্রতিষ্ঠায় নিমগ্ন,তার কি কোন মূল্য নেই?
রুক্ষ-শুষ্ক-মরুময় মনে, নিঃসঙ্গ ঋষি বেশে ভালোবেসে
নির্জনে-নীরবে অশ্রুপাত করে, যে শ্রদ্ধা এবং প্রেম
নিবেদন করি, তা কি কেবল কামনা মিশ্রিত মায়া?
তবে তো একদিন আত্মতৃপ্তির রহস্যের পথ হারিয়ে
ফেলবে নব যুগের প্রেমিক।


তাই পূর্ণ করো সাধনা, গ্রহণ করো আমার অঞ্জলি ।
আজ নির্মল আকাশে-বাতাসে তোমার অমৃত
কণ্ঠের ধ্বনি ছড়িয়ে পড়ুক, যে তুমি কেবল মন্দিরের
নিষ্প্রাণ মূর্তি নও,
পূজারীর অন্তরের বিধাতা স্বরূপ দেবী- ‘তুমি'ই মানবী’।
জনমে-জনমে, যুগে-যুগে, প্রেমিকা হয়ে তুমিই ধরা
দিয়েছো প্রেমিকের হৃদয়ে।
বিশ্বাস করো,রূপ লাবণ্যময়ী মোহিনীর-মায়ায়
আমি পথ ভুলিনি,আর না তো তোমার রুদ্রাণী রূপের
সম্মুখে ভয়ে নত হয়ে তোমায় নমস্কার করেছি।
আমি তোমায় দেখেছি সৃষ্টির জননী রূপে আত্মার পূর্ণতায়,
দেখেছি কবি ও কবিতার মিল বন্ধনে,এবং রেখেছি অন্তরে-
প্রীতি ও অঞ্জলি দানে।



✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য
রচনাকাল, ২৯ জুন ২০২০ সাল,
বাংলা- ১৫ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সোমবার।
দাকোপ খুলনা,বাংলাদেশ।