ভোরের সূর্য জাগার আগে জাগি বলে আমি সেকেলে
দিনের শুরুতে তোমায় ডাকি বলে আমি গোঁড়া,
ওরা বলে বোকা, খেলা ভুলে তোমার সামনে দাড়াই (সালাত) বলে
‘রিজিকের মালিক তুমি’ বলি বলে ওরা বলে কপাল পোড়া।
জামা ঢিলে ঢালা আমার, মিসকিন বলে ওরা
নাচে গানে যাই না তাই জানি না আধুনিকতা,
সুদ-ঘুষ খাইনা বলে মিশেনা আমার সাথে তারা
ন্যায় অন্যায় মানি বলে জানি না স্বাধীনতা।
‘সৃষ্টির শুরুতে তুমি’ বললে ওরা বলে ‘মৌলবাদী’
আপনাকে বাঁচাতে লড়াই করি, তবু ‘জঙ্গিবাদী’,
সত্যের পথে ডাকি তাই আমি বিপ্লবী
জানিনা সভ্যতা, জুলুমে কেন হয়েছি প্রতিবাদী?
আরও কত কথা আছে আরও কত শব্দ
নানা রঙ্গে নানা ঢঙে করতে আমায় জব্দ,
দোষ আমার কিছুই নয়, তবু আছে একটি
‘ইসলাম’ আমার দেহ-মনে, চেতনাধারীদের করতে স্তব্ধ।


আমি বিদ্রোহী, আমি বিপ্লবী আমি গোঁড়া
আমি সেকেলে, আমি বোকা হোকনা কপাল পোড়া,
চেতনায় ওরা পি, এইচ, ডি করেছে, শুধু
মানবতায় আজও রয়েছে খোঁড়া।



সস্তাপুর, নারায়ণগঞ্জ।
২৭ চৈত্র, ১৪২০ বাংলা। ১০ এপ্রিল, ২০১৪ ঈসায়ী।