আমার দিনরাত্রি বেঁচে থাকা,মহাশূন্য... সব ফাঁকা
রাতদুপুর ভরপুর অন্নগ্রহণ আর মল নির্গমন
এই তো শুধু মোটে দুটো কাজ,
বৃষ্টিতে ভিজি, মাথায় পড়েনা বাঁজ...


অথচ সেদিন শুনলাম হাটে,
নাঙ্গল ঠেলতে গিয়ে কঙ্কালসার কৃষক মাঠে
বাঁজ পড়ে গেছে ওপারে! কে সে? সর্ব্বনেশে?
ধিক তারে, সে বিশ্ববিধাতারে!
কাকে ফেলে কাকেই না সে, সুনিবার্চিত করে রেখেছে!


পাথর ভবিষ্যত । বর্তমান হিমবাহবৎ,
আর অতীত যেন মেরুপ্রদেশীয় শীত
কোথাও কোথাও শুধু কাব্য-বিলাস,
আর কোথাও শুধু লাশের উপরে লাশ...


দিন সপ্তাহ, কাটে কি কাটে না,
যাপিত জীবন যেন দুর্গম গহীন আমাজন!
বিষ্ময়ে বিবশ বোধ, আজ নিতে চায় প্রতিশোধ...
জনসাধারণে ভীতি আজ দ্রব্যমূল্য স্ফীতি,
কোথায় বরফ গলে আর কোথায় উচ্চতা বাড়ে জলে!


উত্তরহীন প্রশ্ন, কত কত ছোট বড়,
হৃদপিন্ডে বঁড়শীর মত, ভীমরুলের হুলের মত
ঘাতক টেটার মত বিধে আকাশের দিকে ঝুলে থাকে!


কী করে কী করি আমি!
হায় অন্তর্যামী...
মসজিদ আমার ঘরের নিকটে, রহমান সে কোন তল্লাটে?
প্রশ্ন শুধু প্রশ্ন, টন কে টন প্রশ্ন
আমি অচঞ্চল চক্রবাক, অসহায় সতৃষ্ণ!


উত্তরের আশা নাই, তাই হে বন্ধু বিদায়...
চির বিদায়, হাতের কাছেই যেন আঁধার ছোঁয়া যায়,
উত্তরের আশা নেই, আমার সর্ব্বনাশ সেই
যে আমি আর এতটুকুও আমার মধ্যে নেই...


__________________________
"সামান্য অতিমাত্রিক"
অতিজাগতিক কাব্যসমগ্র


উত্তরা ঢাকা বাংলাদেশ
২৯/অক্টোবর/২০১৭/রবিবার