বসন্ত এসে মোর হৃদয় যেন খুশিতে ভরে গেল,
গাছের পাতাগুলি সব রুপান্তরিত হয়ে শ্যামল
                                            রঙেতে এল ।
আম-জাম-কাঁঠাল ডালে কুঁড়ি ভরে গেল,
চারিদিকে কুহু শুনে শুনে মোর দিবা ফুরিয়ে এল ।


আমি রোজ বিকালে ঘুরতে বেড়াই পিয়ালী নদীর
                                                     তীরে,
স্রোতস্বিনীর উথাল তরঙ্গ খুবই ভালো লাগে মোরে ।
বসন্তের শীতল সমীরণ মোর ছুঁয়ে বারে বারে,
মোর ঘুম ভেঙে যায় ভোরবেলাতে বিহগের গানের
                                                    সুরে ।


ভোরবেলাতে ঘাসের আগায় শিশির বিন্দু চমক
                                                    লাগে,
দুপুরবেলায় সূর্যি মামা ঘনের কোনে বদন লুকিয়ে
                                                   থাকে ।
বিকাল হলে প্রকৃতি যেন শ্যামলিমার মতো লাগে,
তাই এই ঋতুতে পড়াশুনা-খেলাধুলা খুবই ভালো
                                                   লাগে ।


বসন্তে তটিনীর কুল্ কুল্ ধ্বনিতে প্রাণ জুড়িয়ে যায়,
মনের গহন কোনে চিরকাল এদৃশ্য স্থায়ী হয়ে রয় ।