একটি তর্জনীর কী ক্ষমতা!
কী প্রভাব ইতিহাস বদলে দেবার!!
অত্যাচারীর খড়্গ কি কারার নিগড়
পারেনি সে তর্জনী নুইয়ে দেবার
গড়েছো ইতিহাস আজ অমর কাব্য গড়ার।


মায়ের আদরের খোকা, জনতার মুজিব,
সাম্য-মৈত্রী এনে হয়েছ বঙ্গবন্ধু তুমি -
এক নিটোল কারিগর অমর স্বাধীনতার
সাধ্য আছে কার? রোখে দেয় দান তার;
ইতিহাস যদি নেয় করে স্থান হৃদয়ে জনতার!


স্বপ্নভরা মুঠো ফুঁড়ে যে তর্জনী আকাশ ছোঁয়
জাদুর মহিমায় আন্দোলিত আশার অযুত কণা -
বিন্দু থেকে বিশালে জাগায় উত্তাল তরঙ্গ
সে তর্জনী শুধুই কি আঙ্গুল এক? বিধ্বংসী তোপ;
উন্নাসী নাকের দাম্ভিকতা গুড়িয়ে দেবার।


শতবর্ষ পাইনি তোমাকে, শতাব্দী হয়েছে পূর্ণ
দূর হতে দেখো সৌর্য-সামর্থে আজ
তোমার বাঙালি নয় মোটে দীর্ণ শীর্ণ
আরো পেতে চাই হাজার বছর ধরে
বাঁচতে ঐ তর্জনীকেই অমোঘ প্রেরণা করে।