স্বপ্নের ছাপবিহীন কিছু  ছেঁড়া কাগজ হাতে
হাঁটতে থাকি অচেনা কোন ছায়াপথ প্রাতে;
আকাশে বেওয়ারিশ কিছু মেঘের ঘোরাঘুরি,
দূর নীহারের ছায়ায় স্বপ্নের ঘোরে উড়াউড়ি!


এই সময় চমকপ্রদ কিছু ঘটনা আমি স্পষ্ট দেখতে পাই-


বিবেকের কাছে বন্দী, তৃতীয় বিশ্বের ক্ষুধা,
আয়ুর মতো ক্ষয়ে যাওয়া সময়ের তিক্ত সুধা,
ফটকের ওপারে করুণার অট্টহাসি,
কান্নাকাটি ভুলে যাওয়া চোখ রাশি রাশি,
মুখভর্তি নীরবতায় তারিফ বিলি করা দেউলিয়া শীল,
হাঙ্গামায় তলিয়ে যাওয়া স্বর তাচ্ছিল্যের সান্তনায় নীল,
হতাহত ও রক্তাক্ত একটি শহর,
গোলমেলে জিহ্বার ধাষ্টামো প্রহর,
অবিচ্ছিন্ন দাসত্বের পেটুক কাল,
সুদূর অরণ্যে নির্বাসিত অর্ধশ্রুত ন্যায় পয়মাল।


আমি হাঁটতে থাকি অচেনা কোন ছায়াপথ ধরে-
আমার পাশ কেটে-
অনন্তের পথে মিলিয়ে যায় একটি ঘুমহীন রাতের বার্তা!