আমাদের প্রস্থান
*
তুমি চলে গেছ!
আমিও আসছি।
যে পথে যাওয়ার কথা
বহুবার শুনেছি
অপরিচিত সেই পথে
আমিও হাঁটতে চলেছি
তোমার পিছু পিছু।
পড়ে থাক শুকনো বকুল
জানি বহুদিন ছড়াবে গন্ধ তার,
পথ চেয়ে দিন গুনে যাবে
বসন্তের বাতাস,
ধবল জোছনার রাত।
রাত্রি খুঁজে যাবে নিয়তই
নির্ঘুম সঙ্গী তার,
পৃথিবীর শেষ প্রান্ত অবধি
পৌঁছে যাবে লুকোনো কান্নার প্রতিধ্বনি,
মুখর সমরাঙ্গন কাঁদবে হুতাশে।
এই চরাচরে বড় অনিশ্চিত সময়ে
আমরা বেঁধেছি ঘর,
শুরু থেকেই ক্রমশ দূরে সরে যাওয়া।
রহস্যময় অদৃশ্য কেবল ডেকে যায়,
ওখানে এখনও অনেক স্থান শূন্য।
আমরা চলি একাকী কিংবা দল বেঁধে-
শূন্যতা পূরণে,
আর এদিকে পরিপূর্ণ যা কিছু ছিল
সবই হতে চলেছে শূন্য।
আমার আঁচলে নিয়েছি জল ভরে,
যদি প্রয়োজন হয়!
তোমার কাছে কী ছিল জানা নেই আমার।
পথে নেমেছি আমি,
কোলাহল থেমে স্তব্ধতা নেমে এলে
আমি একটু একটু করে এগিয়ে যাই,
পরাজিত হয়ে হার মেনে নেয়
আমাকে থামানোর পরাশক্তি।
শেষ যতিচিহ্নের পর
আর কোথাও আমি নেই,
তোমার পিছু পিছু অনন্তকাল হাঁটতে থাকা;
বৃত্তের মত,পরিভ্রমণ ক্লান্তিহীন,
জানি কখনও হবে না দেখা
আর আমাদের।
১৯/০৩/২০২০