অন্তর্লীন
--
উত্তরীয় তোমার উড়ে যায়
উত্তুরে হাওয়ায়,
ধবল কোমল মেঘ আজ
আকাশে ভাসে
রৌদ্র লুকায় লজ্জাবনত
হিমেল দাপটে।
কিংশুকে লাগে দোল মৃদু,
প্রসূনে কান্তি যেমন
তোমার অবয়বে খেলে যায়
স্বর্গীয় আনন্দ যত,স্থিত তোমাতে
যাবতীয় প্রশান্তি।
আশির্বাদে তৃপ্ত করি মন
আমিও থাকি ঢের বেশি সুখে
নিত্য আনন্দ খেলা করে
নির্দ্বিধায় আমার চরাচরে,
দগ্ধ প্রহর নিরিবিলি কাটে
একান্তই সংগোপনে।
আমি চেয়ে দেখি বিচিত্র দুটি চোখ
অনুক্ষণ খু্ঁজে ফেরে
প্রত্যাবর্তনের দিনক্ষণ,
বিচিত্র কুপিত হাসি -লাস্যে নিমগ্ন,
আর আমি! প্রকাশ্য- কুণ্ঠিত কপট ছদ্মবেশে
অচেনা অজানা চিরদিন,
রহস্যময় সংলাপে বিব্রত করি তোমাকে।
উত্তরীয় উড়ে,আমি পিছু পিছু
তোমার নিশ্চল অন্তরালে,
তোমার নিশ্চুপ কথার আড়ালে
প্রগলভ আমি,
তোমাতে বিলীন উত্তুরে হাওয়া
আর একটি আস্ত আমি,
আমাতে পুঞ্জীভূত জমাট হিমশৈল।
--১৬/০৮/২০১৯