( প্রিয় কবি ফয়জুল মহী' র  'জীর্ণ-শীর্ণ চিন্তা' কবিতা পড়তে গিয়ে এই কবিতার সৃষ্টি ... প্রিয় কবিকে উৎসর্গ এই কবিতা খানি )


================


একটা সময়,
একটা কথা কিংবা একটা কবিতা
পাল্টে দিতো সব।
প্লাকার্ডে প্লাকার্ডে ভরে যেতো রাজপথ
দেয়ালে, পিঠে, বুকে, শ্লোগানে, শ্লোগানে
আগুন, আগুন, আগুন
রক্তের স্রোতে শুদ্ধ হতো মুক্তির সনদ।


একটা সময়,
এক ফোঁটা অশ্রু কিংবা এক ফোঁটা রক্ত
একটা দিয়াশলাই কাঠির মতো
সহস্র বারুদের গুদামে আগুন দিতো,
সঞ্চিত বিদ্রোহের প্রবল বিস্ফোরণে
ব্যারিকেড, লাঠি, গুলি, ব্যারাক, হেলমেট, কম্ব্যাট
লণ্ডভণ্ড হয়ে যেতো সব।


আর এখন,
লাশের পর লাশ পরে থাকে,
কলমের পর কলম,
কথার পর কথা,
তবু  রাজপথ পরে থাকে ফাঁকা।
পরিচ্ছন্ন দেয়াল, অবগুণ্ঠিত বুক, পিঠ, মুখ
স্পন্দনহীন, মুক, নিস্তব্ধ, নিশ্চুপ


অক্ষম পৌরুষত্বের নিষ্ফল আক্রোশে,
বেওয়ারিশ লাশের মতো
আমরাও এখন পোকার দখলে ।


==========================